Header Ads

Image and video hosting by TinyPic

Breaking News

অটিসম পাগলামি নয়


এটা একেবারে নির্মূল করা যায় না। কয়েক বছর আগেও আমরা মানসিক রোগীদের পাগল বলেই ভাবতাম। এই সব রোগ সারানো যায় না। পাগলামোর আবার কোনো চিকিসা হয় নাকি? এইসব ভাবতাম। কিন্তু চিকিসা বিজ্ঞানের উন্নতির সঙ্গে সঙ্গে সেই চিন্তাধারার পরিবর্তন হয়েছে। মনোবিদদের মতে অটিসম হল একটা মানসিক অসুখ। এটা নারী পুরুষ উভয়েরই হতে পারে। সাধারণত ৩ বছরের মধ্যে এই অসুখটি ধরা পরে। বেশ কিছু উপসর্গ দেখা যায়।

 অটিসম রোগীরা অন্যদের যন্ত্র বা প্রাণহীন বস্তু মনে করে। অন্য শিশুর সঙ্গে খেলা না করে নিজেকে নিয়েই মগ্ন থাকে। এদের অনুভূতি কম। তাকিয়ে থাকাটাও অদ্ভূত। কাপড়ের টুকরো , ঘুরন্ত লাট্টু ইত্যাদির প্রতি আকর্ষনবোধ করে। জীবনের পরিচিত ছকের বাইরে গেলে এরা প্রচন্ড উত্কন্ঠিত হয়ে ওঠে। এরা যেখানে বসে খায় রোজ সেখানে বসে খেতেই পছন্দ করে। যে রাস্তা দিয়ে যায় সে রাস্তা দিয়েই যেতে পছন্দ করে। 

 এই ধরনের রোগীদের ক্ষেত্রে বিশেষ ধরনের কাউন্সেলিং খুব ভালো কাজ দেয়। কাউন্সেলিং শুধু রোগীর নয় তাদের বাবা মায়েদেরও করা হয়। কারণ কাউন্সেলিং শুরু করার আগে এটা মনে রাখার দরকার যে অটিসম একটি ক্রনিক ডিসিস। এটা পুরোপুরি নির্মূল হয় না। অটিস্টিক শিশুদের ধৈর্য ধরে ট্রিটমেন্ট করাতে হবে। তাহলেই ভালো রেজাল্ট পাওয়া যাবে। কাউন্সেলিং-এর সঙ্গে কিছু মেডিসিন ও দেওয়া হয়। শিশুটির পড়াশোনার জন্য অবশ্যই স্পেশাল এডুকেটর-এর সাহায্য নিতে হয়। এইভাবে একটা সাপোর্ট সিস্টেম-এর সাহায্যে রোগীকে সুস্থ করে তুলতে হয়।
 লিখলেন গৈরিক ঘোষ