Header Ads

Image and video hosting by TinyPic

Breaking News

কেউ খারাপ বললেও কিছু যায় আসে না - এনা




বেশ কিছুদিন আগেই বিগ বস হাউস থেকে আউট হয়েছেন। কিন্তু এখনো যেন সেই ট্রমা থেকে বেরোতে পারছেন না। ট্রমা থেকে বেরোতে আরো কিছুদিন সময় লাগবে বলেই মনে করছেন অভিনেত্রী এনা সাহা। মাত্র দু-সপ্তাহেই প্রেমে পড়েছেন, আবার পুরনো মানুষগুলোর আসল চেহারাটাও দেখেছেন। বিগ বসের ঘরের অভিজ্ঞতা নিয়ে খোলাখুলি আড্ডায় কলকাতা গ্লিত্জের সামনে এনা সাহা। শুনলেন সুমি মিত্র

বিগ বসের হাউসে অভিজ্ঞতা কিরকম ছিল ??
এনা : অভিজ্ঞতা ঠিক বলে বোঝাতে পারব না। একসঙ্গে এতজনে মিলে থাকা। হয় তাদের সঙ্গে প্রতি মুহুর্তে ঝগড়া করতে হবে আর না হয় মানিয়ে বুঝিয়ে থাকতে হবে। খুব অদ্ভত একটা অভিজ্ঞতা। চাইলেও নিজের মতো করে থাকা যায় না। আর আমি ভীষনভাবে নিজের মতো থাকতে অভ্যস্ত। আমার যতদুর মনে হয় , আমি বোধ হয় ওখানে সবথেকে কম ঝগড়া করে ছিলাম। সত্যি বলতে আমার ওরকম বাওয়াল একদমই পছন্দ নয়। তাই চেষ্টা করেছি যতটা নিজের মতো করে ভালো থাকা যায়।
তোমার কি মনে হয় বাকিদের মতো ঝগড়া করতে পারছিলে না বলেই এত তাড়াতাড়ি আউট হয়ে গেলে ?
এনা : হতেই পারে। আরো অনেক কারণ অবশ্যই আছে। সেই কারণগুলো আমি জানি। আজকে আমাকে দিয়ে তো সত্যি ওদের টিআরপি উঠছিল না। আমাকে দিয়ে কোনো কন্টেন্ট পাচ্ছিল না। কি কন্টেন্ট পাবে, ওই  প্রথম সপ্তাহে আমি প্রেম করেছি। তার পরের সপ্তাহ থেকে আর কিছুই করিনি। ও হ্যা মৈনাক থাকাকালীন ওকে একদিন জড়িয়ে ধরে শুয়েছিলাম। সেটা দেখে বাকিদের বাজে কথা বলতে সুবিধা হয়েছে। আমি আর শিলাদা বসে দুটো ভালো কথা বলছি, সেটা তো আর ওদের কাছে কন্টেন্ট না।
 বিগ বস কি স্ক্রিপটেড ?

এনা : না বিগ বস একদমই স্ক্রিপটেড নয়। বাড়িটা ওরকম ভাবেই করা যেখানে তোমাকে অচেনা মানুষগুলোর সঙ্গে থাকতে হবে। ভালো না লাগলেও প্রতিদিন একই মুখ দেখতে হবে।  তাই ঝগড়া হওয়াটা খুব স্বাভাবিক।

ঝগড়া হওয়াটা এতটাই স্বাভাবিক যে পুরনো বন্ধুত্ব ভেঙে যেতে পারে ?

এনা : সেটা হয়েছে তো। রি দি , কমলিকা আন্টি আর শিলা দা অসম্ভব ভালো বন্ধু ছিল। শিলা দার লাইফ থেকে রি দি এবং কমলিকা আন্টি পুরোপুরি বাদ হয়ে গিয়েছে। আর কোনদিনও ওদের আগের মতো বন্ধুত্ব হবে না।
কোন জিনিসটা সবচেয়ে শকিং ছিল ?

এনা : স্যান্ডি ফিরে আসার পর ওর ব্যবহার। কারণ আমার মনে হয়েছিল আমি কোনো দোষই করিনি। আমি ওরকম্ ভাবেই আমার বন্ধুদের সঙ্গে মিশি। তাতে যদি কারো সেটা নোংরা মনে হয় বা নোংরা ভাবে দেখে তাতে আমার কোন দোষ নেই।
দিনের ২৪ ঘন্টার মধ্যে মাত্র ১ ঘন্টা এডিট করে দেখানো হয়।  তাতে অনেক কিছুই বোঝা যায় না। যার ফলে ইমেজ ভালো হওয়ার পাশাপাশি ইমেজ খারাপ ও হতে পারে।

এনা : একদমই তাই। ওখানে থাকাকালীন আমার একটা কথা মনে হয়েছে, বেরিয়ে আসার পরে আরো বেশি করে মনে হয়েছে যে কেউ ঝগড়া করছে মানে তারা শত্রু একেবারেই না। আবার কেউ জড়িয়ে ধরে শুয়ে আছে মানেই তারা প্রেম করছে তাও একদমই নয়। চ্যানেল দেখাচ্ছে  নিজেদের পয়েন্ট অফ ভিউ থেকে। একটা ২৪ ঘন্টার শুটিং এক ঘন্টায় দেখানো কঠিন। পাবলিকও পুরোপুরি ইমেজটা বুঝতে পারছে না। যাদের ইমেজ নষ্ঠ হওয়ার তাদের হয়ে যাচ্ছে।
স্যান্ডির সঙ্গে বাইরেও সম্পর্ক  কি থাকবে?

এনা : জানি না।  দুজনের ওপরই ডিপেন্ড করছে।
বাড়ির ভিতর গ্রুপটা কারা শুরু করেছিল ?

এনা : গ্রুপটা আমরাই করেছিলাম। বাকিদের তো কোনো গ্রুপ ছিল না, ওরা শুধু ঝগড়া করেই মরত। আমি থাকাকালীন গ্রুপ বলতে আমি, শিলাদা, জয়্জিত দা, অপূর্ব, মিখাইল। তারপর জয়ী এলো, তার আগে মৈনাক ছিল। আমাদের একসঙ্গে সময় কাটাতে ভালো লাগত, তাই একসঙ্গে থাকতাম। সেটাকে যদি কেউ গ্রুপ মনে করে তাহলে হ্যা আমরা গ্রুপ করেছিলাম।
সবথেকে বেশি নাটক কে করে ?

এনা : প্রিয়া পাল। যার কোনো কাজ নেই।
তোমার মতে কোন তিন জনের জেতার চান্স সবথেকে বেশি ?
 এনা : রি দি , অপূর্ব ও শিলাদা।
 কে জিতলে তোমার ভালো লাগবে ?
এনা : মাইন্ড বলে মিখাইলের জেতা  উচিত। আর মন বলে স্যান্ডি।
বিগ বস হাউসে ফের সুযোগ পেলে যাবে ?

এনা : আমি ঠিক জানি না। হয়তো যাব। আমি বেরোনোর সময় বলেছিলাম যে যেতে চাই না। কিন্তু এখন যেতে চাই। কারণ বেরোনোর পর বুঝতে পারছি কে কিরকম। তাদের আসল রূপটা দেখতে পারছি।
বিগ বস হাউসে কোন পজিটিভ দিক ?

এনা : অনেক কিছুই পজিটিভ পেয়েছি। এখন আমি জানি যেকোনো জায়গায় আমি ঠিক ম্যানেজ করে নিতে পারব। ফোন না হলেও আমার খুব একটা অসুবিধা হবে না। আগে মনে হত, অনেক জিনিস আছে যেগুলো ছাড়া বাঁচতে পারব না। কিন্তু এখন সেই ভুলটা ভেঙেছে। যেমন আমি ভাবতেই পারিনি যে দু'সপ্তাহে আমি কারও প্রেমে পড়তে পারি। কিন্তু আমি পড়েছি।
কিছু মিস করছ ?

এনা : শুরুতে করছিলাম। এখন আর না। একটা ট্রমা থেকে গিয়েছে। এই ট্রমা-টা থেকে বেরোতে হয়তো আরো কিছুদিন সময় লাগবে।
অনেকেই তোমার পিছনে অনেক কথা বলেছে। তাদের সঙ্গে বাইরে কি আগের মতোই সম্পর্ক থাকবে ?

এনা : আমার তরফ থেকে একইরকম থাকবে। অনেকেই অনেক কথা বলেছে। সেগুলো নিয়ে ভাবিনা। ওরা বললেই তো আমি তা হয়ে গেলাম না। কে কি বলল না বলল তাতে আমার কিছু যায় আসে না। আমি আমার কাজ করে যাব। আমি ভালো না থাকলে কেউ আমাকে যেমন ভালো রাখতে আসবে না, তেমনি আমারও কোনো দায় নেই কারো প্রতি।

 ইন্টারভিউ - সুমি মিত্র